চ্যানেল ওম টিভি

বিশ্ব ফুটবলের অবরুদ্ধ দুয়ার খুলে শর্তসাপেক্ষ মাঠে গড়িয়েছে জার্মান বুন্দেসলিগা ।

বিশ্ব ফুটবলের অবরুদ্ধ দুয়ার খুলে গেছে। করোনাভাইরাসের কারণে স্থগিত হয়েছিল বিশ্বের প্রায় সব ক্রীড়া আসর। তবে এই করোনা মাঝেই শর্তসাপেক্ষ মাঠে গড়িয়েছে জার্মানির ক্লাব ফুটবল লিগের সর্বোচ্চ আসর বুন্দেসলিগা।

সব ক্লাবকে ৫১ পৃষ্ঠার একটি নির্দেশিকা দেয়া হয়েছে। যেখানে বলা হয়েছে সপ্তাহে অন্তত দুই বার সকল খেলোয়াড়ের করোনাভাইরাস পরীক্ষা করা আবশ্যক। ম্যাচের সময় কয়েকটি বাসে ভাগ হয়ে আসবে খেলোয়াড়দের। সাইডবেঞ্চে যারা থাকবেন, সবার মাস্ক থাকতেই হবে। বাসেও প্রত্যেকের মধ্যে দেড় মিটার দূরত্ব মেনে বসতে হবে। ড্রেসিংরুমেও একই ব্যবস্থা। ম্যাচের আগে হাত মেলানো, ফটোসেশন বন্ধ। বাড়তি ঝুঁকি এড়াতে মাঠে থাকছে না কোনো দর্শক। ক্লাবগুলোকে স্বাস্থ্যবিধি বিষয়ক নির্দেশনা কঠোরভাবে অনুসরণের কথাও মনে করিয়ে দিয়েছেন ডিএফএলের প্রধান নির্বাহী সেইফের্ট। খেলোয়াড়, কোচিং স্টাফ, নিরাপত্তা কর্মী ও অন্যান্য যারা আছে সব মিলিয়ে স্টেডিয়ামে সর্বোচ্চ ৩০০ জন গ্রহণ করা হয়েছে। এছাড়া আরও নানা নিয়মকানুন থাকছে।

ফিফার নিয়ম মেনে বুন্দেসলিগার প্রতিটি দল পাঁচজন ফুটবলার বদলি করতে পারবে। প্রতি ম্যাচে এ সুযোগটি পাবে ক্লাবগুলো। খেলোয়াড়রা যাতে ইনজুরিতে না পড়েন। সে জন্যই ফিফা এই নতুন নিয়মের অনুমোদন দিয়েছে।

বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় মাঠে গড়িয়েছে ম্যাচ। যেখানে অসবার্গের আতিথ্য নিয়েছে ভলসবুর্গ। বরুশিয়া ডর্টমুন্ড মুখোমুখি হবে শালকের। আরবি লিপজিগ লড়বে ফ্রেইবুর্গের বিপক্ষে। হফেনহাইমের মাঠে খেলবে হার্থা বার্লিন। আর লিপজিকের আতিথ্য নেবে ফ্রেইবুর্গ। রাত সাড়ে ১০টায় ফ্রাঙ্কফুর্ট নিজেদের মাঠে লড়বে মসনেস গ্লাডবাখের বিরুদ্ধে।

বুন্দেসলিগার সঙ্গে জার্মানির দ্বিতীয় বিভাগ ফুটবলও মাঠে গড়াবে। তবে সব ম্যাচ হবে দর্শকহীন স্টেডিয়ামে।

করোনাভাইরাসের কারণে প্রায় দুই মাস বন্ধ ছিল বুন্দেসলিগা। ১৮ দলের এই লিগে প্রতি ক্লাবের বাকি আছে ৯-১০টি করে ম্যাচ। বর্তমানে লিগের শীর্ষে আছে বায়ার্ন মিউনিখ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.