চৈত্র নবরাত্রিতে যেই কাজগুলো করলেই জীবনে নামবে অন্ধকার !

সামনেই বাসন্তী পুজো ৷ শরৎকালে অকালবোধনের সময়ে বাঙালিরা মেতে ওঠেন দুর্গাপুজোয় ৷ সে সময় মা দুর্গার পুজোতে নিষ্ঠাভরে পুজো করেন সকলেই ৷ দেবী মহামায়ার আরধনায় ব্রতী হন ভক্তরা ৷ এ বার চৈত্র মাসের বাসন্তী পুজো ৷ সারাবছর ৪ বার হয় নবরাত্রি ৷ বাসন্তী পুজোর সময়কার তিথিকে বলা হয় চৈত্র নবরাত্রি ৷ শরৎ নবরাত্রি, চৈত্র নবরাত্রি, গুপ্ত নবরাত্রি এবং মাঘ নবরাত্রি। চৈত্র নবরাত্রি মার্চ এপ্রিল মাসে বা চৈত্র মাসেই পড়ে। চৈত্র নবরাত্রি ২৫ মার্চ থেকে শুরু হচ্ছে। যার সমাপ্তি হবে আগামী ২ এপ্রিল। ভারতীয় পঞ্চাঙ্গ অনুযায়ী চৈত্র মাসের শুক্ল প্রতিপদে নতুন বছরের সূচনা, এই দিনটিকে নববর্ষ উৎসব বলা হয়। মহারাষ্ট্র এবং কোঙ্কনে এটিকে গুড়ি পদওয়া পরব, সমবৎসর বলেও ডাকা হয়। দক্ষিণ ভারতে আবার এই উৎসব উগাড়ি নামে পরিচিত। চৈত্র নবরাত্রিতে নয় দিন টানা দুর্গার নয় রূপের পুজো করা হয় এবং নিজস্ব প্রথা অনুযায়ী অষ্টমী বা নবমীর দিন রাম নবমী পালন হতে থাকে। এ ছাড়া এ সময় পুজো হয় দেবী অন্নপূর্ণার ৷ তাই এ সময় কিছু নিয়ম মেনে চলা উচিত ৷ নবরাত্রির দিনগুলোতে দেরি করে ঘুম থেকে উঠবেন না ৷ এ দেবী রুষ্ট হতে পারেন  দেবীর আরাধনা করুন ৷ নিময় করে পুজো দিতে না পারলেও সকাল সকাল স্নান সেরে নিয়ে মা দুর্গার নাম জপ করুন ৷ এই কয়েকটাদিন আমিষ ভোজন না করাই ভাল ৷ বিবাদ থেকে দূরে থাকুন ৷ এতে নাকি নতুন বছরে অমঙ্গল বয়ে আসতে পারে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.