বাঁশখালীতে হিন্দু শিক্ষকের উপর ইসলাম ধর্ম অবমাননার অভিযোগে স্মারকপত্র প্রদান

চট্টগ্রামের বাশঁখালীর শিবানন্দ দেব নামের এক স্কুলশিক্ষকের বিরুদ্ধে ইসলাম ধর্ম অবমাননার মিথ্যা অভিযোগে ফাঁসানোর চেষ্টা করেছে বাহারচরা রত্নপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের মুসলিম শিক্ষার্থীসহ এলাকাবাসীরা। 

ঘটনার সূত্রপাত হয় গত ৪ মার্চ ২০২০ তারিখ বুধবারে ১০ম শ্রেণির ক শাখার ইসলামধর্মের শিক্ষক জনাব হারুনুর রশিদের অনুপস্থিতির কারণে হিন্দুধর্ম শিক্ষক  শিবানন্দ দেবকে সহকারী প্রধান শিক্ষক স্বপন চৌধুরী উক্ত ক্লাসটি নেওয়ার নির্দেশ দেয়া থেকে।

সহকারী শিক্ষক শিবানন্দ দেব ১০ম শ্রেণির ক শাখায় ক্লাস নিতে গেলে একজন দুষ্ট কোন ছাত্র আরবি পড়ানোর দাবী করলে উপস্থিত শিক্ষক শিবানন্দ দেব তাদের থেকে আরবী শিখবে বলে বিষয়টি এড়িয়ে যায়।

তারপর শিক্ষক শিবানন্দ দেব তাদেরকে একথায় ধর্ম শব্দের অর্থ জিজ্ঞাসা করে কিন্তু কেউ উত্তর দিতে না পেরে সবাই চুপ থাকল এমতাবস্থায় তাদের নীরবতা ভঙ্গের জন্য শিবানন্দ দেব শিক্ষার্থীদের ইসলাম শব্দের কয়েকটি অর্থ জিজ্ঞাসা করেন। প্রত্যুত্তরে তারা শান্তি শব্দটা উচ্চারণ করলে শিবানন্দ দেব এছাড়াও আরো আগের দুটি অর্থ বলতে বলেন। এক ছাত্র বই খুলে দেখালেন সেখানে আনুগত্য, আত্মসমর্পণ এ দুটি অর্থ আগেই রয়েছে।

এরইমধ্যে একটি ছাত্র অহেতুক বেয়াদবী করলে তাকে শিবানন্দ দেব ক্লাস হতে বের করে দেয় এবং সাথে সাথে আরো ২জন ছাত্র টয়লেটে যাবার অনুমতি নেয়। পরে তারা ক্রব্ধ হয়ে ৩ জনেই একযোগে সহকারী প্রধান শিক্ষক সহকারী প্রধান শিক্ষক স্বপন চৌধুরীর নিকট শিবানন্দ দেবের বিরুদ্ধে ইসলাম নিয়ে কটুক্তির ডাহা মিথ্যা অভিযোগ করে।

সহকারী প্রধান শিক্ষক স্বপন চৌধুরী দৌড়ে এসে শিবানন্দ দেবকে ক্লাসরুম হতে চরম অপমান করে বের করে দিতে চাইলেন। শিবানন্দ দেব ক্লাসরুমে থেকে এ অকল্পনীয় মিথ্যা অভিযোগের প্রমাণ চাইলেন কিন্তু টিফিন ছুটির ঘণ্টা পড়ায় বিষয়টি অমীমাংসিত অবস্থায় ক্লাস ছুটি হয়ে যায়।
এরপর দুষ্ট ও অদূরদর্শী ছাত্ররা এলাকার ধর্মপ্রাণ মুসলিম ভাইদের ধর্মীয় অনুভূতি উস্কে দিয়ে শিবানন্দ দেবের বিরুদ্ধে ফেসবুক ও বিভিন্ন প্রচার মাধ্যমে চরম মিথ্যাচার ও সংখ্যালঘুভিত্তিক অমানবিক সাম্প্রদায়িকতার অগ্নিকাণ্ড সৃষ্টি করে। গত ১৪ তারিখ রোজ শনিবার আনুমানিক দেড় শতাধিক আবেগপ্রবণ মুসল্লি মিছিল সহকারে শিবানন্দ দেবের বিরুদ্ধে বাহারচরা রত্নপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মৃদুল কান্তি দাশ বরাবর নিম্নোক্ত স্মারক লিপি প্রদানের মাধ্যমে শিক্ষক শিবানন্দ দেবের অবিলম্বে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানায়।

এলাকাবাসী কতৃক স্মারকপত্র প্রদান

এছাড়াও স্থানীয় কিছু অনলাইন সংবাদ মাধ্যমে একতরফা সংবাদ প্রচার করে বিষয়টি আরো জটিল করে তুলছে।


Leave A Reply

Your email address will not be published.